৭ই বৈশাখ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
শনিবার , এপ্রিল ২০ ২০১৯
Breaking News
Home / জাতীয় / হাজী ইমদাদুল্লাহ মুহাজিরে মক্কী (রহঃ) উনি নবীজির (সা) জন্মালোচনা কালে কিয়াম করতেন?

হাজী ইমদাদুল্লাহ মুহাজিরে মক্কী (রহঃ) উনি নবীজির (সা) জন্মালোচনা কালে কিয়াম করতেন?

জবাবঃ পূর্ববর্তী মাশায়েখদের দু একজনের যারাই কিয়াম করেছেন বলে জানা যায়, তাদের কারো কি এ আকিদা ছিল যে, নবীজি (সা) তিনি দরূদ পাঠকালে কিংবা নবীর জন্মালোচনার সময় মজলিসে হাজির বা আগমণ করেন! (নাউযুবিল্লাহ) ।

মজার ব্যাপার হল, হাজী ইমদাদুল্লাহ মুহাজিরে মক্কী (রহঃ) – উনি নিজে না ছিলেন ফকিহ, না ছিলেন একজন মুজতাহিদ। কাজেই উনার কথা কিংবা কাজ শরীয়তের দৃষ্টিতে দলিল হিসেবে সাব্যস্ত হয় কিভাবে?

এ সম্পর্কে মুজতাহিদ ইমামগণের বক্তব্য :
মুজাদ্দিদে আলফে সানী শায়খ আহমদ সারহেন্দী রহঃ লিখেছেন-
ﻋﻤﻞ ﺻﻮﻓﻴۃ ﺩﺭ ﺣﻞ ﻭ ﺣﺮﻣﺖ ﺳﻨﺪ ﻧﻴﺴﺖ. ﺍﻟﻲ ﻗﻮﻟﻪ ﺍﯾﮟ ﺟﺎ ﻗﻮﻝ ﺍﻣﺎﻡ ﺍﺑﻮ ﺣﻨﯿﻔۃ ﺭﺡ ﻭ ﺍﻣﺎﻡ ﺍﺑﻮ ﯾﻮﺳﻒ ﺭﺡ ﻭ ﺍﻣﺎﻡ ﻣﺤﻤﺪ ﺭﺡ ﻣﻌﺘﺒﺮ ﺳﺖ. ﻧﮧ ﻋﻤﻞ ﺍﺑﻮﺑﮑﺮ ﺷﺒﻠﯽ ﻧﻮﺭﯼ ﺭﺡ .

অনুবাদ, কোনো কাজ হালাল বা হারাম হওয়ার ব্যাপারে কোনো সূফী বুযূর্গের (পীর ফকিরের ব্যক্তিগত) আমল দলীল নয়।বরং এ ক্ষেত্রে হযরত ইমাম আবু হানিফা রহঃ, ইমাম আবু ইউসূফ রহঃ ও ইমাম মুহাম্মদ রহঃ প্রমুখ মুজতাহিদ ইমামগণের কথা দলীল।

প্রখ্যাত সূফী বুযূর্গ আবু বকর শিবলী নূরী রহঃ এর কাজও শরীয়তে দলীল হতে পারেনা। {দেখুন, মাকতুবাত, দপ্তরে আউয়াল পৃষ্ঠা ২৩৫}

জনৈক কবি কতইনা সুন্দর করে বলেছেন- ﮨﮯ ﺗﺒﺎﮨﯽ ﺩﯾﻦ ﮐﯽ ﺍﻥ ﺗﯿﻦ ﺳﮯ. ﭘﯿﺮ ﺟﺎﮨﻞ ﻣﯿﺮ ﻇﺎﻟﻢ ﻋﺎﻟﻢ ﺑﺪ ﺩﯾﻦ ﺳﮯ .

অনুবাদ, তিন শ্রেণির মানুষ ধর্মের সর্বনাশ ডেকে আনে। জালিম বাদশাহ, জাহেল পীর ফকির আর বদদ্বীন মৌলভী।”

ইমাম বুখারীর উস্তাত হযরত আব্দুল্লাহ বিন মুবারক তিনিও বলেছেন-
ﻭ ﻫﻞ ﺍﻓﺴﺪ ﺍﻟﺪﻳﻦ ﺍﻻ ﺍﻟﻤﻠﻮﻙ. ﻭ ﺍﺣﺒﺎﺭ ﺳﻮﺀ ﻭ ﺭﻫﺒﺎﻧﻬﺎ
.
অনুবাদ, তিন শ্রেণির মানুষ দ্বীনের ক্ষতি করে। বাদশাগণ, বদদ্বীন মৌলভী আর (মূর্খ) পীর ফকিরেরা।”

হাফিজুল হাদিস আল্লামা ইবনে দাকীকুল ঈদ্ রহঃ লিখেছেন-
ﺍﻥ ﺍﻟﻐﺎﻟﺐ ﻓﻲ ﺍﻟﻌﺒﺎﺩﺍﺕ ﺍﻟﺘﻌﺒﺪ ﻭ ﻣﺄﺧﺬﻫﺎ ﺍﻟﺘﻮﻗﻴﻒ . ﻫﻜﺬﺍ ﻗﺎﻝ ﺩﻗﻴﻖ ﺍﻟﻌﻴﺪ

অনুবাদ, ইবাদত সমূহে উদ্দেশ্য হল আল্লাহপাকের বন্দেগী করা। আর এর ভিত্তি হল ওহী নির্ভরতা।” {দেখুন এহকামুল আহকাম ১/৫১}

কাজেই বুঝা গেল, কোন্ কাজ করলে আল্লাহপাক খুশি হবেন, সাওয়াব দিবেন, এটা কোনো পীর ফকিরের যুক্তি বুদ্ধি বা আবেগে সাব্যস্ত হবার বিষয় নয়, এ জন্য ওহী তথা শরীয়তের সুস্পষ্ট ফয়সালা জুরুরী।

আরো মজার কথা হল, নবীজির জন্মালোচনা মুহূর্তে হাজী ইমদাদুল্লাহ মুহাজিরে মক্কী (রহঃ) – কৃত কথিত কিয়ামের মাকসাদ বা উদ্দেশ্য-মজলিসে নবীজী (সা) হাজির হতেন এরকম কোনো আকিদাই ছিল না; বরং তিনি বলতেন : اور قیام کے وقت بے حد لطف و لذت پاتا ہون (এবং কিয়াম করার সময় অশেষ আনন্দ এবং মজা উপলব্ধি করি)। [হাফত মাসায়েল-৫]

তাছাড়া নবীজির জন্মালোচনা মুহূর্তে হাজী ইমদাদুল্লাহ মুহাজিরে মক্কী (রহঃ) – কৃত কথিত কিয়াম মাজযূবী হালতে (নবীজির মুহাব্বতে জ্ঞানশূন্য অবস্থায়) ছিল। প্রকৃত ওলীদের মাজযূবী হালতে সংঘটিত অস্বাভাবিক কোনো কাজ অন্যদের জন্য অনুকরণযোগ্য হতে পারেনা।

আর যদি প্রকৃত ওলীদের মাজযূবী হালতে সংঘটিত অস্বাভাবিক কোনো কাজ অন্যদের জন্য অনুকরণযোগ্য হত, তাহলে হাজী ইমদাদুল্লাহ মুহাজিরে মক্কী (রহঃ)-এর চেয়েও অপেক্ষাকৃত বড় আশেকে রাসূল হযরত ওয়াইসকরণী (রহঃ) এর ন্যায় বর্তমানকালের তথাকথিত কোনো আশেকে রাসূল নিজের দাঁত উপড়ে ফেলা শরয়ী ফয়সালা মতে জায়েজ হবে কি?
অনুরূপ বিশিষ্ট মাজযূব হযরত মানসূর হাল্লাজ (রহঃ)-এর ন্যায় “আনাল হক্ব” (আমিই আল্লাহ) বলা সহীহ হবে কি?

আশাকরি বুঝতে পেরেছেন।

লিখেছেন- প্রিন্সিপাল নূরুন্নবী

Check Also

ভুরুঙ্গামারীতে ঝড়ে গাছের ডাল ভেঙ্গে স্কুল ছাত্রের মর্মান্তিক মৃত্যু

ভুরুঙ্গামারী(কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধিঃভুরুঙ্গামারীতে ঝড়ে গাছের ডাল ভেঙ্গে মাথায় পড়ে ছমির উদ্দিন (১২) নামের ৬ষ্ঠ শ্রেণীর  এক স্কুল …

জাতীয় দূর্যোগ প্রস্তুতি দিবস পালিত

মোয়াজ্জেম হোসেনঃ দূর্যোগ মোকাবিলায় প্রস্তুতি হ্রাস করবে জীবন ও সম্পদের ঝুঁকি- এ প্রতিপাদ্যের আলোকে পটুয়াখালীর …

ভূরুঙ্গামারীর ৮৫ জন গ্রাম পুলিশ ৪ মাস যাবৎ বেতন পান না।

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার প্রায় ৮৫ জন গ্রাম পুলিশ চার মাস যাবত বেতন না …

মন্ত্রিসভায় আসছেন আরও ১০ নতুন মুখ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ সম্প্রসারিত হচ্ছে মন্ত্রিসভা। তবে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলভুক্ত রাজনৈতিক দলগুলোর শীর্ষ নেতাদের …

Leave a Reply

Your e-mail address will not be published.

two × three =