দৈনিক শিক্ষা খবর

প্রশাসনের হস্তক্ষেপে সারিয়াকান্দিতে যমুনার চর থেকে বালু তোলা বন্ধ

প্রতিনিধিঃ বগুড়ার সারিয়াকান্দিতে যমুনা নদীর তীর ঘেষে জেগে ওঠা চর থেকে বালু তোলা বন্ধ করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। গতকাল বুধবার বগুড়া জেলা প্রশাসনের নির্দেশে সারাদিন ব্যাপী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: রাসেল মিয়া, ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে বালু উত্তোলন বন্ধ করে দেন। এসময় বালু আনা নেওয়ার কাজে ব্যবহৃত ট্রাক নম্বর-চট্ট-মেট্রো-ড ৯২৪ আটক করা হয়।
জানাযায় একটি প্রভাবশালী মহল দীর্ঘ দিন হলে যমুনার তীর ঘেষে জেগে ওঠা কালিতলা, দেবডাঙ্গা, কুতুবপুর ও চন্দনবাইশা চর এলাকায় ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের যমুনা নদীর ডান তীর সংরক্ষণ কাজ ঘেষে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করিয়া মজুদ গড়ে তোলে বিক্রয় করিয়া আসিতেছিল।

ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা কালে দৈনিক তৃতীয় মাত্রা ও কারেন্ট নিউজ. কমের এ প্রতিনিধিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: রাসেল মিয়া বলেন, বালু বা মাটি উত্তোলন আইন ২০১০ মতে কোনো বাঁধ বা স্থাপনার তিন কিলোমিটারের মধ্যে বালু বা মাটি উত্তোলন করা যাবে না। কিন্তু নিয়ম ভেঙ্গে যমুনা নদীর তীর রক্ষা বাঁধের নিকট থেকে বালু তোলা হচ্ছিল। এতে করে তীর রক্ষা বাঁধ হুমকির মধ্যে পরার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই জেলা প্রশাসনের নির্দেশে বালু তোলা বন্ধ করা দেওয়া হয়েছে। এরপর কেউ যদি বালু তোলা চেষ্টা করে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তিনি জানান এর আগেও কয়েক দফা ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে বালু তোলা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সে নির্দেশ অমান্য করে তারা বালু তোলা অব্যাহত রাখে। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার খবর পেয়ে বালু উত্তোলনকারীরা পালিয়ে যাওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া যায় নি।

তবে শোনা যাচ্ছে এ দলের সাথে রাঘব বোয়ালরা জড়িত।

এই বালু উত্তোলন স্থায়ীভাবে বন্ধ না হলে এই এলাকা খুব হুমকির মুখে পড়বে।