৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
বুধবার , মে ২২ ২০১৯
Breaking News
Home / ইসলাম / পীযুষ বন্দোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করার দাবি

পীযুষ বন্দোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করার দাবি

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ দাড়ি রাখা, টাখনুর ওপর কাপড় পড়া ‘জঙ্গি লক্ষণ’ বলে সম্প্রীতি বাংলাদেশ নামক সংগঠনের আহ্বায়ক পীযুষ বন্দোপাধ্যায়ের প্রচার করা বিজ্ঞাপনে ক্ষোভ প্রকাশ করে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

গতকাল এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ইসলামের আবশ্যক পালনীয় দাড়ি রাখা, টাখনুর ওপর কাপড় পড়াসহ বেশ কিছু লক্ষণকে জঙ্গি লক্ষণ হিসেবে তুলে ধরে পীযুষরা বাংলাদেশের সম্প্রীতি বিনষ্ট করতে ভারতীয় এজেন্ডা বাস্তবায়নে মাঠে নেমেছে। পীযুষ বন্দোপাধ্যায় এই বিজ্ঞাপন প্রচার করে ইসলাম ও মুসলমানের হৃদয়ে প্রতিবাদের আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছে।

মহাসচিব বলেন, শতকরা ৯৩% মুসলমানের দেশে আমাদের প্রিয় নবী হুজুর পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সুন্নাত নিয়ে বেয়াদবি করার স্পর্ধা দেখাবে আর মুসলমানেরা নীরবে বসে থাকবে তা হতে পারে না। এ ধরনের ঔদ্ধত্যপূর্ণ উক্তি কোনোভাবেই মানা যায় না। এই বেয়াদবির চরম শাস্তি হতে হবে। একজন বিধর্মী ব্যক্তি ৯৩ ভাগ মুসলমানের ঈমান ও আমল নিয়ে বেয়াদবি করবে এটা মুসলমান দেখবে তা হতে পারে না। বিজ্ঞপ্তি। nayadigonto

Check Also

বৈষম্যের পাহাড়ে চাপা এম,পি,ও ভুক্ত শিক্ষকরা:

বৈষম্যের পাহাড়ে চাপা এম,পি,ও ভুক্ত শিক্ষকরা! বেসরকারী শিক্ষকদের মুক্তি যে সহজে হবার নয় তা বলার আর অবকাশ নাই।সারা দিন, সারা বছর লিখতে থাকলেও তাদের বৈষম্য লিখা শেষ হবার নয়। তবুও লিখতে যখন শুরু করছি অন্তত কয়েকটি বৈষম্য তুলে ধরার প্রয়াস করছি, যদি কখনো,কোনো একদিন রাষ্টের কর্ণধরদের কারো দৃষ্টি গোচর হয়। প্রথমেই সর্বশেষ ঘোষিত পে-স্কেল দিয়ে শুরু করি।সর্বশেষ ঘোষিত পে-স্কেলে বেসরকারী শিক্ষদের সম্পূর্ণরুপে বঞ্চিত করার অপ্রয়াস ও নেহায়েত কম ছিলো না।দীর্ঘ আন্দোলনের আট মাস পরে বেসরকারী শিক্ষক-কর্মচারীরা পে-স্কেলের অন্তর্ভুক্ত হয়। পে-স্কেলে ঘোষিত বার্ষিক ৫% প্রবৃদ্ধি কার্যকর হয় জুলাই/২০১৬ থেকে শুধু বঞ্চিত থেকে যায় বেসরকারী শিক্ষক-কর্মচারীরা।দীর্ঘ দুই বছর সংগ্রাম করে ২০১৮ সালে অর্জিত হয় আকাঙ্ক্ষিত বার্ষিক প্রবৃদ্ধি।যার বিগত দুই বছরের বকেয়া বাদ দিয়ে কার্যকর করা হলো। এর পরে ঘোষিত হলো প্রজাতন্ত্রের কর্মকর্তা কর্মচারীদের জন্য বৈশাখী ভাতা/২০১৭ থেকে। সেখানেও বঞ্চিত করা হলো বেসরকারী শিক্ষক-কর্মচারীদেরকে।এবারেও দুই বছর আন্দোলন,সংগ্রাম করে ২০১৯ সালে বৈশাখী ভাতার মুখ দেখতে পায় বেসরকারীরা তাও আবার বৈশাখের এক সপ্তাহ পরে এবং বিগত দুই বছেরর বকেয়া বাদ দিয়েই। ২০১৮ সালে ৫% বার্ষিক প্রবৃদ্ধি দেওয়ার আট মাস পরেই আবার অবসর কল্যানের নাম করে বেসরকারী দের অনুদান থেকে অতিরিক্ত ৪% কর্তনও করে নেওয়া হয়। যার ফলে দেখা যায় তাদের বেতন ভাতা আগের জায়গায় রয়ে যায়।প্রবৃদ্ধি ঘোষিত হলেও প্রকৃত পক্ষে তারা সুবিধা বঞ্চিত হলো ৪% কর্তনের মাধ্যমে। এর পরে টাইমস্কেল থেকে বঞ্চিত করা হলো হাজার হাজার বেসরকারীদের। যার ফলে বড় ধরনের বৈষম্যের স্বীকার হতে হলো নিরীহ টাইমস্কেল বঞ্চিতদের।এছাড়া পদন্নতিতে আনা হলো ব্যাপক পরিবর্তন যে কারনে অনেকে আইনের বেড়াজালে আটকা পড়লো পদন্নতি নামক সোনার হরিণ থেকে। এর পরে বলবো বাড়ি ভাড়ার কথা বেসরকারী শিক্ষক- কর্মচারী সবাই বাড়ি ভাড়া পান মাত্র এক হাজার টাকা।যেখানে প্রতিষ্ঠান প্রধান থেকে শুরু করে ঝাড়ুদার পর্যন্ত সবাই সমান।হাজার টাকায় বাড়িভাড়া এ দেশের কোথায়ও আছে বলে অন্তত আমার জানা নাই। আমিও আমার এলাকা থেকে প্রায় ৪০০ কিলোমিটার দূরে একটা বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে চাকরী করছি। যেখানে বাড়ি ভাড়া বাবদ প্রতিমাসে গুনতে হয় কম পক্ষে ৮/ ১০ হাজার টাকা।এছাড়া বেসরকারী শিক্ষক-কর্মচারীরা সবাই চিকিৎসা ভাতা পায় ৫০০ টাকা। এছাড়াও আরো অনেক বৈষম্য লিখা যাবে, তবে আজ আর লিখলাম না। বাঁকী বৈষম্য গুলো না হয় আর একদিন তুলে ধরার চেষ্টা করবো। আজ যে বৈষম্য গুলো তুলে ধরেছি এতো গুলো বৈষম্য বুকে নিয়ে একজন শিক্ষক কি করে আশানুরুপ পাঠদান করবেন সে কথা আমি এ দেশের বিশিষ্ট জনদের উপরেই ছেড়ে দিলাম।আমাদেরও তো পরিবার পরিজন আছে, তাদেরকেও তো ভরনপোষণের দায়িত্ব আমাদেরকেই নিতে হয়। এ পর্যন্ত শিক্ষকরা যা পেয়েছে তা আন্দোলনের মাধ্যমেই পেয়েছে।এ থেকেই বোঝা যায় আগামী দিনেও আন্দোলন ছাড়া কিছু আদায় করা মনে হয় অত্যন্ত কষ্টকর। তার পরেও আমি বলবো বর্তমান শিক্ষাবান্ধব সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী শেখ হাসিনা উপরে উল্লেখিত বিষয়গুলো বিবেচনা করে সকল বেসরকারী শিক্ষা ব্যবস্থা এক যোগে জাতীয়করণের ঘোষনা দিয়ে শিক্ষকদের দীর্ঘদিনের স্বপ্ন পূরণ করে পুরো শিক্ষক সমাজকে কৃতজ্ঞতা পাশে আবদ্ধ করবেন। জয় বাংলা জয়বঙ্গু বন্ধু। মোহাম্মদ মোকাররম হোসেন (আপন)। সাধারন সম্পাদক, বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি, চট্টগ্রাম বিভাগ।

কে হচ্ছেন এমপি? জোবাইদা না শর্মিলা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি ৬টি আসন পেয়েছে। এর মধ্যে ঠাকুরগাঁও-৩ আসনের জাহিদুর রহমান ২৫ …

ভয়ঙ্কর হারিকেনে পরিণত হয়েছে ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’

ঘণ্টায় ১৬ কিলোমিটার গতিতে উড়িষ্যা উপকূলের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। এ ঘূর্ণিঝড় আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে …

অতিরিক্ত ৪% কর্তন বন্ধ সহ বিভিন্ন দাবি দাওয়া নিয়ে বেসরকারি শিক্ষা ব্যবস্থা এখন উত্তাল !!

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বেসরকারি শিক্ষা ব্যবস্থায় বর্তমান সময়ে চরম অবস্থা বিরাজমান। বেসরকারি শিক্ষকরা আজ অবিভাবকের সংকটে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.

9 + three =